Header Ads

সিলেট টুডে: আমাদের জন্য লিখুন

ন্যায্য দাম না পাওয়ায় ৮২৬ চামড়া রাস্তায় ফেলে মাদ্রাসার প্রতিবাদ

সিলেট দারুস সালাম মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা প্রতিবারের মতো এবারো ঈদুল আজহায় নগরীর বিভিন্ন বাসা বাড়ী থেকে গরুর ৮২৬টা চামড়া  ও ২২৭টা খাসির চামড়া সংগ্রহ করেছিল। এ চামড়া বিক্রি করে যে টাকা আয় হতো তা দিয়ে মাদ্রাসার প্রায় ৩০০এতিম শিক্ষার্থীর সহ অন্যান্য খরচ ব্যয় হত।

কিন্তু অন্যান্যবারের মতো এবারো চামড়াগুলো সংগ্রহ করলেও ন্যায্য দাম না পাওয়ায় সেগুলো রাস্তায় ফেলে এসেছেন মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, সারাদিনে সংগ্রহ করা ৮২৬টি পশুর চামড়া নিয়ে রাতে আম্বরখানায় বিক্রি করতে নিয়ে গিয়েছিলেন মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ক্রেতারা মাত্র ২৫-৩০ টাকা দাম করছিলেন প্রতিপিস চামড়ার।

এসময় সিলেটের চামড়া ব্যবসায়ীরা অজুহাত দেখান তারা গতবারের দেয়া চামড়ার টাকাই এখনো ঢাকা ট্যানারি মালিকদের থেকে পাননি। সেগুলো বকেয়া থাকায় এবার তারা দাম দিয়ে চামড়া কিনতে পারছেন না। এমনকি এই টাকায় তারা যে চামড়াগুলো কিনছেন সেগুলোও বিক্রি করা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন তারা।

একপর্যায়ে মাদ্রাসার পক্ষ থেকে ব্যবসায়ীদের ন্যায্য দাম দেয়ার দাবি জানিয়ে বলা হয় প্রয়োজনে বাকিতে চামড়াগুলো কিনে নিতে। ছয়মাস পরে টাকা দিলেও হবে। কিন্তু ব্যবসায়ীরা সেটিও মানেন নি।

ফলে চামড়া ব্যবসায়ীদের গঠিত সিন্ডিকেটের প্রতিবাদ স্বরুপ মঙ্গলবার রাত প্রায় ১টায় সবমিলিয়ে ১০৫৩ পশুর চামড়া নগরীর আম্বরখানায় ফেলে চলে যান তারা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ ও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ সহ অত্র এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এদিকে, মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের অনুরোধে পক্ষ ফেলে যাওয়া ৮২৬টি চামড়া আজ সকালে সিলেট সিটি কর্পোরেশন তাদের ডাম্পিং ইয়ার্ডে পুঁতে ফেলেছে৷

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ