Header Ads

সিলেট টুডে: আমাদের জন্য লিখুন

সিলেটে অটোরিকশা চালকের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

সিলেটে অটোরিকশা চালকের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ

নিখোঁজ হওয়ার এক দিন পর সিলেট নগরীর বালুচর এলাকার লালটিলা থেকে নাইম আহমেদ (১৫) নামে এক অটোরিকশা চালকের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এরআগে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নাইমের ২ বন্ধুকে আটক করে পুলিশ। আটককৃতরা সিলেট শাহ ঈদগাহের হাজারীবাগের আব্দুর মুমিনের ছেলে আব্দুর রুকন (২১), আব্দুর করিম পিয়ারের ছেলে পারভেজ (২০)।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) বিকালের দিকে বিমানবন্দর থানার ওসি শাহদাৎ হোসেন ও আম্বরখানা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. রাকিব উদ্দিন ভূঁইয়ার নেতৃত্বে নগরীর বালুচর এলাকার দলদলি চা বাগানের লালটিলা থেকে নাইমের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নাইম বিয়ানীবাজার উপজেলার আলবান্না এলাকার আব্বাস উদ্দিনের ছেলে। পরিবারের সাথে সে বর্তামানে সিলেট নগরীর বালুচর এলাকার টুনা মিয়ার কলোনিতে থাকতো।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নগরীর শাহী ঈদগাহ এলাকায় বেশ কিছুদিন ধরে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালাতো নাঈম। নিহত চালক নাঈমের বয়স ১৪ বছর। প্রতিদিনের মতো, বৃহস্পতিবার অটোরিকশা নিয়ে বের হওয়ার পর বাসায় ফিরতে দেরি করে নাইম। অনেক খোজাখুজির পর না পেয়ে রাতে তার বাবা আব্বাস উদ্দিন বিমানবন্দর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। এর প্রেক্ষিতে নাইমের দুই বন্ধু রুবেল ও পারভেজকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তারা নাইমকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার কথা শিকার করে। তাদের দেওয়া তথ্য মতে শাহী ঈদগাহের দলদলি চা বাগানের চানমারী লালটিলা থেকে নাইমের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার সাথে থাকা অটোরিকশা এখানো উদ্ধার হয়নি।

বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহাদত হোসেন সিলেট টুডে ডটকমকে জানিয়েছেন, নাইম বৃহস্পতিবার থেকে নিখোঁজ। তার বাবা বৃহস্পতিবার রাতেই থানায় জিডি করেন। এই জিডির সূত্র ধরে নাইমের দুই বন্ধু রুবেল ও পারভেজকে আটক করে পুলিশ।

তিনি আরো জানান, আটককৃত আব্দুর রুকন ও পারভেজ ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় ১৪ বছর বয়েসের চালক নাঈম আহমদ দেখে পেলে। এসময় তারা নাঈম আহমদকে গামছা দিয়ে গলায় পেঁছিয়ে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করেছে বলে আটককৃতরা স্বীকার করে। তাদের তথ্য অনুযায়ী লালটিলা থেকে নাইমের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। ময়না তদন্তের জন্য  লাশ ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নাইমের সাথে থাকা অটোরিকশাটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ